পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট ও ব্যাংকনোট প্রকাশ

0
19

মোহাম্মদ মাকসুদুল হাসান ভূঁইয়া রাহুলঃ
বাংলাদেশের ইতিহাসে আজ ঐতিহাসিক এক দিন। বহু আকাঙ্ক্ষিত স্বপ্নের ‘পদ্মা সেতু’র শুভ উদ্বোধন হয়েছে। দেশীয়, আন্তর্জাতিক ও প্রাকৃতিক নানান বাধাবিপত্তি পেরিয়ে প্রমত্ত পদ্মার বুকে স্বগৌরবে সিনা টান করে দাঁড়ানো পদ্মা সেতুর জমকালো উদ্বোধন দেখলো বিশ্ববাসী।

গৌরবোজ্জ্বল এই সময়কে স্মরণীয় করে রাখতে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের পক্ষ থেকে দুটো দুটো খাম, ডাকটিকিট, স্যুভেনির শিট, ডাটাকার্ড, বিশেষ সিলমোহর এবং বাংলাদেশ ব্যাংক একটি স্মারক ব্যাংকনোট প্রকাশ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এগুলো উদ্বোধন করেন।

শনিবার (২৫ জুন, ২০২২) প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানস্থলের মঞ্চে ১০ মূল্যমানের ডাকটিকিট, ৫০ টাকা মূল্যমানের সুভ্যিনির শিট, ১০ টাকা মূল্যমানের দুটো ভিন্ন আকৃতির খাম, ৫ টাকা মূল্যমানের ডাটাকার্ড, সিলমোহর ও ১০০ টাকার স্মারক ব্যাংকনোট আনুষ্ঠানিকভাবে অবমুক্ত করেন।

স্মারক ডাকটিকিট, খাম ও ডাটাকার্ড ঢাকা জিপিওর ফিলাটেলিক ব্যুরো থেকে সংগ্রহ করা যাবে। পর্যায়ক্রমে চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও সিলেট জিপিও সহ দেশের প্রধান প্রধান ডাকঘরে এগুলো কিনতে পাওয়া যাবে।

নতুন ১০০ টাকার স্মারক নোট বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল অফিস এবং পরে অন্যান্য শাখা অফিসে পাওয়া যাবে। স্মারক ব্যাংকনোটটির জন্য পৃথকভাবে বাংলা ও ইংরেজি লিটারেচার সম্বলিত ফোল্ডার প্রস্তুত করা হয়েছে। ফোল্ডার ছাড়া শুধুমাত্র খামসহ স্মারক নোটটির মূল্যনির্ধারণ করা হয়েছে ১৫০ টাকা এবং ফোল্ডার ও খামসহ স্মারক নোটটির মূল্যনির্ধারণ করা হয়েছে ২০০ টাকা।

দেশ-বিদেশের বিভিন্ন বিশেষ বিশেষ দিবস ও ঘটনাবলি স্মরণে বছরের বিভিন্ন সময় ডাকটিকিট, উদ্বোধনী খাম, বিশেষ খাম, ডাটাকার্ড, পোস্টাল স্টেশনারি ও সিলমোহর প্রকাশ করে ডাক বিভাগ। পাশাপাশি বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিবসে মুদ্রা ও ব্যাংকনোট মুদ্রণ করা হয়। পদ্মা সেতু নির্মাণ ও উদ্বোধনের মাধ্যমে বিশ্ব দরবারে আত্মনির্ভরতার এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে বাংলাদেশ। এমন একটি আনন্দময় মাহেন্দ্রক্ষণকে স্মরণার্হ করে রাখার জন্যই ‘পদ্মা সেতু’ নিয়ে স্মারক ডাকটিকিট, খাম সহ নানান পোস্টাল সামগ্রী ও স্মারক ব্যাংকনোট প্রকাশ করলো বাংলাদেশ ডাক বিভাগ এবং বাংলাদেশ ব্যাংক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here